আজমিরীগঞ্জে বন্ধুর স্ত্রী কে ধর্ষণ করেছে বন্ধু

আজমিরীগঞ্জে বন্ধুর স্ত্রী কে ধর্ষণ করেছে বন্ধু

মীর দুলালঃ

আজমিরীগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মহসিন মিয়া (২২) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে আজমিরীগঞ্জ থানা পুলিশ।

১১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাতে ৯ টায় উপজেলার ৩ নং জলসুখা ইউনিয়নের পাঠুলীপাড়া (ড্রেনের হাটী) এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে গত শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে উপজেলার জলসুখা ইউনিয়নের পাটুলীপাড়া ড্রেনের হাটী এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। পরে এ ঘটনায় শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) ধর্ষণের স্বীকার ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ধর্ষণের স্বীকার ওই গৃহবধূ বর্তমানে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে রয়েছেন।

গ্রেপ্তারকৃত মহসিন মিয়া উপজেলার জলসুখা ইউনিয়নের মধ্যপাড়ার এলাকার আজমান মিয়ার পুত্র।

জানা যায়, জলসুখা ইউনিয়নের মধ্যপাড়া গ্রামের আজমান মিয়ার পুত্র মহসিন একই এলাকার পাঠুলীপাড়া গ্রামে বিয়ে করে।

বিয়ের পর থেকেই শশুর বাড়িতেই বসবাস করে আসছেন মহসিন।

শ্বশুর বাড়িতে থাকার সুবাদে ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামীর সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তোলে মহসিন।

বন্ধুত্বের সুবাদে প্রায় সময়ই ধর্ষিতার বাড়িতে যাওয়া আসা করতেন ওই যুবক।

বিগত কিছুদিন পূর্বে গৃহবধূর স্বামী জীবিকার তাগিদে ঢাকা চলে যান। এই সুযোগে ধর্ষক মহসিন গত শুক্রবার( ১১ সেপ্টেম্বর ) সন্ধ্যা ৯ টায় গৃহবধূর বসত ঘরে প্রবেশ করে, ঘর খালি থাকায় মুখে গামছা পেঁচিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন।

বিষয়টি জানাজানি হলে প্রথমে ধামা চাপা দেয়ার চেষ্টা চালায় মহসিনের শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

পরে বিষয়টি নিয়ে পাটুলীপাড়ায় দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়ে।

এসময় স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে এস আই জয়ন্ত তালুকদারের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল পাঠুলী পাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে মহসিন কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে আজমিরীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোশারফ হোসেন তরফদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ বিষয়ে ধর্ষণের স্বীকার গৃহবধূ বাদী হয়ে একটি মামলা ধায়ের করেছেন।

ধর্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।