আজমিরীগঞ্জে হত্যা মামলায় ৬ আসামীর যাবজ্জীবন

0
6

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা গ্রামের তুতন মিয়া হত্যা মামলায় ৬ আসামীর যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া অভিযুক্ত প্রমাণ না হওয়ায় আরো ১৪ আসামীকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়।

সোমবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ নাসিম রেজা এই রায় প্রদান করেন।

দন্ডাদেশ প্রাপ্তরা হলেন- আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা গ্রামের সফর আলীর ছেলে মোশাহিদ মিয়া, একই গ্রামের সামছুল হকের ছেলে মোহন মিয়া, গোলাম মাওলার ছেলে জিয়াউর মিয়া, রহমান উল্লাহ্ ছেলে ওয়াহাব উল্লাহ্, আবুল হোসেনের ছেলে চাঁন মিয়া ও দিলু মিয়া।

হবিগঞ্জের আদালত পরিদর্শক মো. আল আমিন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রায় ঘোষণার সময় দন্ডপ্রাপ্ত সকল আসামিই আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৫ সালের ৩০ অক্টোবর রাতে আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা ও পিরিজপুর গ্রামের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত ‘হাকদাইড়’ বিলে জলসুখা গ্রামের তুতন মিয়াকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরদিন সকালে স্থানীয় লোকজন তার খন্ড খন্ড মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

একই বছরের ১৫ নভেম্বর তুতনের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম ২০ জনকে আসামী করে হবিগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা না করার জন্য তাকে হাত পা বেধে কয়েকদিন রাখা হয়েছিল বলেও অভিযোগ করেন আনোয়ারা।

পরবর্তীতে আজমিরীগঞ্জ থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কান্তি বড়ুয়া ২০০৬ সালের ১৯ মার্চ ২০ জনেকেই অভিযুক্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এ রায় প্রদান করে।