১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বিকাল ৩:০২

জনপ্রিয় ৫ সংবাদ

আরো কিছু সংবাদ

এমপি আবু জাহিরের মনোনয়ন ফরম জমা দিতে ঢাকায় জেলার আওয়ামী পরিবার

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন হবিগঞ্জ-৩ আসনে টানা তিনবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মোঃ আবু জাহির।

ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নির্ধারিত বুথে আজ দুপুরে ফরম জমা দেন তিনি।

এর আগে রাজধানীতে প্রায় দুই হাজার কর্মী-সমর্থক তাঁকে নিয়ে শোডাউন করে। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে শোডাউনটি শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দ, সকল সহযোগী সংগঠনে জেলায় নেতৃত্বদানকারী এবং ঢাকায় বসবাসরত সদর, লাখাই ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলাবাসীসহ বিভিন্ন উপজেলার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা শোডাউনে অংশ নেন।

কর্মী সমর্থকদের মাথায় ছিল বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ টি-শার্ট এবং ক্যাপ। অল্প সময়ে হবিগঞ্জবাসীর এ আয়োজনে ঢাকার রাজপথে ফুটে উঠে দ্বাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচনী আমেজ।

পরে এমপি আবু জাহির দলীয় কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দেন এবং সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচার মেলা অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়। এতে দেশবারেণ্য হবিগঞ্জের শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন।

আলোচনা সভায় এমপি আবু জাহির সেখানে উপস্থিত হবিগঞ্জবাসীর প্রতি টানা তিনবার আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করা এবং ২০০৮ সালের নির্বাচনে মোট কাস্টিং ভোটের ৭০ শতাংশ ভোট তাঁকে দেওয়ায় কৃতজ্ঞতা জানান।

জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, বিগত প্রায় ১৫ বছরে হবিগঞ্জে শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়সহ যত উন্নয়ন হয়েছে এসবের কৃতিত্ব সাধারণ মানুষের; কারণ আপনারা নৌকায় ভোট না দিলে আমরা এত উন্নয়ন করার সুযোগ পেতাম না।

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলেয়া আক্তার, হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌসভার মেয়র আতাউর রহমান সেলিম, জাকির হোসেন চৌধুরী অসীম, সাংগঠনিক সম্পাদক নূর উদ্দিন চৌধুরী বুলবুল, অ্যাডভোকেট সুলতান মাহমুদ, মশিউর রহমান শামী, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটু, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন, ব্যারিস্টার মোঃ ইফাত জামিল, হবিগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক গৌতম কুমার রায়, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুশফিউল আলম আজাদ, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান হোসাইন মোঃ আদিল জজ মিয়া, লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবীর রেজা, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক একেএম মঈন উদ্দিন চৌধুরী সুমন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শেখ সেবুল আহমেদ, ছাদিকুর রহমান মুকুল, জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডাঃ সাইফ-ই রহমান তন্ময়, সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রহমান রবিন, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া বেগম প্রমুখ।

এছাড়াও হবিগঞ্জ সদর, লাখাই ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় কচি-কাঁচার মেলা অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভার আয়োজন করে ঢাকাস্থ হবিগঞ্জ সদর, লাখাই ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলাবাসী।

ফারুক আহমেদ এতে সভাপতিত্ব করেন এবং সঞ্চালনায় ছিলেন লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক ইকরামুল মজিদ চৌধুরী শাকীল।

সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় গান পরিবেশন করেন দেশের স্বনামধ্যন সঙ্গীত শিল্পী হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান আশিক, বাধন মোদক, ঈভা ও নীলা।