চুনারুঘাটে অবৈধভাবে পিরানহা (সাকার) মাছ বিক্রি

চুনারুঘাটে অবৈধভাবে পিরানহা (সাকার) মাছ বিক্রি

চুনারুঘাটে পিরানহা (সাকার) মাছ অবৈধভাবে বিক্রি হতে দেখা গেছে। চুনারুঘাট দক্ষিণ বাজারে পিরানহা জাতীয় এরকম সাকার মাছ বিক্রি হয়েছে।

ক্রেতারা জানান, আমরা এই রকম মাছ এর আগে কখনো দেখিনি, এর উপকার/অপকার সম্পর্কে আমরা অবগত নই, অনেক গরীব মানুষেরা স্বল্পদামে মাছটি পাওয়ায় কিনে নিতে দেখেছি।

এদিকে অনুসন্ধানে জানা যায়, সাকার ফিশ সাধারণত টয়লেটসহ বিভিন্ন স্থানের নোংরা জিনিস খেয়ে জীবনধারণ করে। একোরিয়ামের ময়লা পরিস্কার রাখার জন্য অন্যান্য মাছের সাথে সাকার ফিশকেও একোরিয়ামে রাখা হয়৷ সামুদ্রিক ব্ল্যাক সি বাশ দেখতেও কিছুটা এই মাছের মতো। তাই বাজারে সাকার ফিশকে ব্ল্যাক সি নামেও অনেক সময় বিক্রি করতে দেখা যায়।

গবেষকরা বলছেন, সাকার ফিশ সাধারণত ভারতে বেশি পাওয়া যায়৷ এবার বন্যার কারনে হয়তো বাংলাদেশে এই মাছ বেশি করে প্রবেশ করেছে৷ এই মাছ পিরানহা মাছের মতো নাকি অন্যান্য ছোট মাছও খায় যা জীব-বৈচিত্রে ব্যাপক প্রভাব ফেলে এ বিষয়ে খতিয়ে দেখার অনুরোধ করেছেন অনেকেই ৷

চুনারুঘাটে সাকার ফিশ বিক্রি করতে আসা বিক্রেতাদের প্রতি প্রশাসনিক পদক্ষেপ কামনা করেছেন বাজারের সাধারণ ক্রেতাগণ।

তাছাড়াও মাছটির উপকার/অপকারিতা যাচাই বাছাই করার আগ পর্যন্ত যেন বাজারে আর কেউ মাছটি বিক্রি করতে না আসে সেদিকে বাজার কমিটিকে খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়েছেন অনেকেই।