চুনারুঘাটে সামাজিক বনায়নের ২৫টি গাছ কেটে নিয়েছে পাচারকারীরা

চুনারুঘাটে সামাজিক বনায়নের ২৫টি গাছ কেটে নিয়েছে পাচারকারীরা

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সতং সড়কের পশ্চিম দ্বিমাগুরুন্ডা মোড় থেকে সামাজিক বনায়নের প্রায় ২৫টি গাছ কেটে নিয়েছে পাচারকারী সংঘবদ্ধ একদল দুঃবৃত্ত। বেশ কয়েকদিন ধরে রাতের আধারে সড়কের গাছগুলি এক একে ওই গাছ কাটা হচ্ছে।

বন বিভাগ ও স্থানীয় লোকজন জানান, বন বিভাগের সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আওতায় কালেঙ্গা রেঞ্জ কর্তৃপক্ষ প্রায় সাত বছর আগে বন বিভাগের সহযোগিতায় রাস্তার পাশে প্রায় দুই হাজার মিনজিয়াম গাছ লাগানো হয়। কিছু গাছ মরে গেছে। বাকিগুলো কাটার সময় এখনো হয়নি। রাতের আধারে গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে পাচারকারীরা। মঙ্গলবার দিন দুপুরে সড়ককের কয়েকটি গাছ কেটে নিয়ে গেছে পাচারকারীরা।

কালেঙ্গা রেঞ্জ কর্মকর্তা মো:আলাউদ্দিন জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সত্যজিত রায় দাশের নির্দেশে চুনারুঘাট সদর অফিসের স্টাইকিং ফোর্স (ওসি) শুভময় বিশ্বাসকে ঘটনার স্থলে পাঠাই, তিনি সরেজমিন ঘটনার স্থলে গিয়ে গাছের কাটা মোথা ও ডালপালা দেখতে পান।

স্থানীয়রা জানান সকালে অজ্ঞাত ৩/৪জন ব্যক্তি গাছগুলো কেটে নিয়ে যান। সরেজমিনে দেখা যায়, সুতাং সড়কের দুই পাশের গাছগুলো বড় হয়ে গেছে। গাছের সারিতে বেশ কিছু কাটা গাছের গুঁড়ি দেখা যায়। আবার এক জায়গায় দেখা যায়, গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। কিন্তু কাটা গাছ পাশেই পড়ে আছে।

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত ৩ মাসে ওই সড়কের অর্ধশত গাছ কাটা হয়েছে। আর গোটা ইউনিয়নের বিভিন্ন সড়ক থেকে কাটা হয়েছে অসংখ্য গাছ। বেশি কাটা হচ্ছে ওই ইউনিয়নের সতং এলাকার মূল্যবান গাছগুলো।

অপরদিকে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের ভৈরবে ২৯ টুকরা প্রায় শতাধিক ঘনফুট সেগুন কাঠ পিক আপ ভর্তিসহ চুনারুঘাটের নাছির উদ্দিন (৩৫) ও রুমেল মিয়া (২৫) কে আটক করেছে ভৈরব থানা পুলিশ।

ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শাহীন মিয়া জানান, চক্রটি মৌলভীবাজারের একটি নকল চিপিং এর মাধ্যমে গাছগুলো ঢাকা পাচারের উদ্দেশ্যে নেয়া হয়। আটককৃতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।