তিন শতাধিক পশুর শুকনো চামড়া কিছু অংশ আগুনে পুড়িয়ে ফেলায় দুর্গন্ধে কাজীরগাঁও – মড়রা গ্রামবাসী সহ পথচারীরা অতিষ্ট

IMG_1045

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ ইউয়িনয়নের মড়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫শ গজ দক্ষিনে সড়কের পাশে পরিত্যক্ত স্থানে কে বা কারা ৩শতাধিক পশুর শুকনো চামড়া স্তূপ করে রাখায় আগুনে কিছু অংশ পুড়িয়ে ফেলায় দুর্গন্ধে বিকৃত হয়ে উঠেছে মড়রা, কাজীরগাঁও গ্রামবাসী সহ পথচারী, শিক্ষার্থীদের নাভিশ্বাস দেখা দিয়েছে। এ অবস্থা দেখে মনে হবে, যেন এসব দেখার বিরোদ্ধে প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানাযায় মড়রা ও কাজীরগাঁও গ্রামের ১৫/১৬ জন দীর্ঘ বছর ধরে কতিত পশুর চামড়া ব্যবসায়ী গত কুরবানীর ঈদের সময় ৩শতাধিক পশুর চামড়া শহর ও গ্রামাঞ্চল থেকে ক্রয় করে এনে মড়রা এলাকায় সড়কের পাশে স্তূপ করে রাখে এবং যার মূল্য প্রায় ৩ লক্ষ টাকা। এসব পশুর চামড়াগুলো বিক্রি করতে না পাড়ায় পচন ধরে শুকিয়ে যায়। এদিকে শুকনো চামড়াগুলো আগুনে কিছু অংশ পুড়িয়ে ফেলায় দুর্গন্ধে ছড়াছড়ি হয়ে উঠেছে জন জীবন, নাভিশ্বাস ও এলাকার পরিবেশ।

দীর্ঘদিন যাবত পশুর চামড়া পচন হওয়ায় কোন স্থানে না ফেলে উক্ত স্থানে রেখে দেয়। চামড়া গুলো সরিয়ে নিচ্ছে না ব্যবসায়ীরা। পশুর চামড়া আগুনে পুড়া দুর্গন্ধে সড়কের উভয় পার্শ্বে কৃষকরা কৃষি কাজ করতে পারছেন না। এ দুর্গন্ধে পথচারী, স্কুল, কলেজ শিক্ষার্থীদের চলাচলে বিঘœ হচ্ছে। এছাড়া এলাকায় নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু থেকে বয়স্করা। আগুনে পুড়া বিষাক্ত দুর্গন্ধে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী।