১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
দুপুর ১:১৫

জনপ্রিয় ৫ সংবাদ

আরো কিছু সংবাদ

বানিয়াচংয়ে দূর্গাপূজা উপলক্ষে মতবিনিময় সভা

হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলায় প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পালিত হতে যাচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ শারদীয় দুর্গোৎসব।

পূজা উদযাপন কমিটি সূত্রে জানা যায়, এবার বানিয়াচং উপজেলায় তাদের ১২৭টি পূজা মন্ডবের লিস্ট তারা দিয়েছেন উপজেলা বরাবরে।
তবে ১২৫টি পূজা হবে বলেও তারা নিশ্চিত করেছেন।
এছাড়া পুরো বানিয়াচংয়ে একটি পূজা অনুষ্ঠিত হবে ব্যক্তিগত ভাবে।

আগামী ২০অক্টোবর শষ্টির মাধ্যমে তাদের পূজার কার্যক্রম শুরু হবে এবং ২৪অক্টোবর দশমীর মাধ্যমে মা’কে বিসর্জনের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটবে।

এই উপলক্ষে বানিয়াচং থানায় আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক নিয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৯সেপ্টেম্বর(সোমবার)সকাল ১০টায় থানা প্রাঙ্গনে থানা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে এই আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।
বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(বানিয়াচং আজমিরীগঞ্জ সার্কেল)পলাশ রঞ্জন দে।

ওসি(তদন্ত)মোঃ আবু হানিফ এর সঞ্চালণায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু, বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি স্বপন কুমার দাস,উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিপুল ভূষণ রায়,বানিয়াচং উপজেলা পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি মাদব দেব, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার নূপুর রঞ্জন দাস,এছাড়াও বানিয়াচং থানার বিভিন্ন ফাঁড়ির ইনচার্জগণও উপস্থিত ছিলেন।

সুজাতপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ নূর আলম,বিথঙ্গল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ আরজদ আলী প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন,অত্র থানা এলাকার প্রত্যেক পূজা মন্ডপের কমিটির সদস্যগণ,উপজেলার ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগন,ইউপি সদস্যগন,বিভিন্ন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্থানীয় দূর্গা পূজা বাস্তবায়ন কমিটির নেতৃবৃন্দ।

মতবিনিময় সভার শুরুতেই শারদীয় দুর্গোৎসব-২০২৩ইং উপলক্ষে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কেন্দ্রীয় পরিষদের ৩৫ দফা দিকনির্দেশনা পাঠ করে শোনান অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন।

পূজা কমিটির নেতৃবৃন্দ প্রতিটি মন্ডপে স্থায়ী পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েনের ব্যবস্থা করতে এবং নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ ও কঠোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন পুলিশ প্রশাসন।

পুলিশ প্রশাসন সার্বক্ষনিক বিশৃঙ্খলা এড়াতে সুন্দর ভাবে যেন পূজা অনুষ্ঠিত হয় এই লক্ষ্য তারা তাদের টহল জোরদার রেখে দায়িত্ব পালন করে তাদের পাশে থাকবেন বলেও এমন আশ্বাস প্রদান করা হয়।