বানিয়াচংয়ে চার বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার

চলন্ত-ট্রেনে-তরুণীকে-ধর্ষণ

মীর দুলাল হবিগঞ্জঃ

১১ ই সেপ্টেম্বর রাত ২টায় হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে শিশু টিকে অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসা দেওয়া হয়।

বানিয়াচংয়ে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে যুবক সাজিদ মিয়া পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

 

স্বজনরা জানান, বানিয়াচং উপজেলার দৌলতপুর (পশ্চিম নল্লা) গ্রামের জনৈক ব্যক্তির চার বছরের শিশুকে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮ টায় বাড়িতে কেউ না থাকায় প্রতিবেশী ইসরাইলের ছেলে সাজিদ মিয়া (২০) নিজ ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করে।

এ সময় শিশুর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সাজিদ মিয়া পালিয়ে যায়।

 

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক হাসপাতালে স্টাফ ও ইসতিয়াক বলেন, ধর্ষণের শিকার শিশুকে রাত ২টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শিশুটির রক্তপাত হচ্ছে।

শিশুটির মা বলেন, আমার শিশু কন্যাকে সাজিদ মিয়া ধর্ষণ করেছে।

আমি তার বিচার ও শাস্তি চাই। যাতে আর কোনো শিশু ধর্ষণের শিকার না হয়।

তিনি বলেন, ঘটনার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। সন্ধ্যা সাড়ে ৮টায় বাড়ির পাশের একটি জমি থেকে হাঁস আনতে গেছি।

আধা ঘন্টা পর হাঁস নিয়ে বাড়ি ফিরে আসি। এসময় বাড়িতে মানুষ জরাও হয়ে থাকতে দেখি।

ঘরে ঢুকতেই চার বছরের শিশুকণ্যা কেঁদে কেঁদে মাকে জরিয়ে ধরে বলতে থাকে ঘটনাটি। তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাটি সম্পর্কে জানেন।

এ ব্যাপারে শিশুটির পরিবার তাৎক্ষণিক ৫নং দৌলতপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাসুম মিয়া ও মহিলা ইউপি সদস্যকে বিষয়টি জানান।

তারা শিশুটিকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করাতে বলেন।