তাহফিজুল কোরআন ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

বানিয়াচংয়ে তাহফিজুল কোরআন ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনা ও বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে দিয়ে বানিয়াচং তাহফিজুল কোরআন ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তীব্র প্রতিদ্বন্ধিতামূলক প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান অর্জন করেছে আজমিরীগঞ্জের আজিমনগর মাদরাসার ছাত্র নুরুল ইসলাম নাঈম। ২য় স্থান অর্জন করেছে বড়ইউড়ি মাদরাসার ছাত্র মাহমুদুল হাসান এবং ৩য় স্থান অর্জন করেছে একই মাদরাসার ছাত্র আরিফুল ইসলাম মাসুম।

নগদ টাকা ক্রেস্টসহ মোট ১০টি পুরস্কারের মধ্যে শায়খ আবু নছর কোরাইশী দাখিল মাদরাসার ছাত্র মনিরুজ্জামান ৬ষ্ঠ ও আবু হাসান ৯ম স্থান অর্জন করেছেন।

জামেয়া সাদিয়া বাসিয়া পাড়া মাদরাসার ছাত্র নজরুল ইসলাম ৪র্থ ও আবু সালমান ১০ম স্থান অর্জন করেছেন। তাছাড়া আজিমনগর মাদরাসার ছাত্র তাফাজ্জুল হক ৫ম, আব্দুল্লাহ আল মাহবুব ৭ম ও সাইফুল জহির ৮ম।

শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হয় হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা। বিকাল ৩টায় ৪নং দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাফেজ সাংবাদিক শিব্বির আহমদ আরজু’র সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, হবিগঞ্জ উমেদনগর টাইটেল মাদরাসার মোহাদ্দিস হাফেজ মাওলানা তাফহিমুল হক। হাফেজ তাওহীদুল ইসলাম ও হাফেজ সুহাইল আহমদের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপাধ্যক্ষ মুফতি আতাউর রহমান, ৩নং ইউপি চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান, দারুল কোরআন টাইটেল মাদরাসার শিক্ষা সচিব মাওলানা গোলাম কাদির, বিশিষ্ট আলেম মাওলানা আব্দুল জলিল ইউসূফী, বানিয়াচং ইমাম সমিতির সেক্রেটারি মাওলানা শায়খ সিরাজুল ইসলাম, বানিয়াচং পল্লী বিদ্যুতের পরিচালক খায়রুল বাশার সোহেল, প্রেসক্লাব সেক্রেটারি তোফায়েল রেজা সোহেল ও দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার প্রতিনিধি মখলিছ মিয়া।

এ ছাড়া অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, শায়খ আবু নছর কোরাইশী দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা নজরুল ইসলাম, দারুন নাশাতের পরিচালক হাফেজ মাওলানা হামিদুর রহমান চৌধুরী সুমন ও মাওলানা মখলিছ মিয়া, বিশিষ্ট সমাজসেবক শেখ আজিজুর রহমান, হাফেজ মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।

বক্তাগণ বলেন, পৃথিবীতে যত রকমের প্রতিযোগিতা আছে তন্মধ্যে শ্রেষ্ঠতম প্রতিযোগিতা হচ্ছে কোরআনের প্রতিযোগিতা। বিশ্বের বড় বড় দেশকে পেছনে ফেলে বারংবার এ দেশের ক্ষুদে হাফেজরা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হলেও রাষ্ট্রীয়ভাবে কোন সংবর্ধনা না দেওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেন বক্তারা।