প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

চৌধুরী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মিল হোসেন খান
চৌধুরী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মিল হোসেন খান

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের বানিয়াচঙ্গের এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে বানিয়াচং উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগে জানা যায়, মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকালে বানিয়াচং উপজেলার চৌধুরী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মিল হোসেন খানের নিকট প্রাইভেট পড়তে যায় ওই স্কুলের ৫ম শ্রেনীর এক ছাত্রী। এ সময় তার অন্য সহপাঠীরা প্রাইভেটে আসতে একটু বিলম্ব হওয়ায় মোজাম্মিল হোসেন খান তাকে একা পেয়ে তার স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেয়াসহ আরো বিভিন্ন ধরণের যৌন হয়রানি করেন।

এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী ভয়ে বই খাতা পেলে পাশের একটি বাড়িতে দৌড়ে গিয়ে আশ্রয় নেয়। পরে ছাত্রীর মা-বাবাকে খবর দিলে তারা তাৎক্ষনিক ওই বাড়িতে ছুটে আসেন। পরে তাদের সবকিছু খুলে বলে ওই ছাত্রী।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বেও এ ধরনের কয়েকটি ঘটনা রয়েছে। যা বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যরা অবগত। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার ছাইফুল আলম বলেন, ‘অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে’।

হবিগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুর রেজ্জাক বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি, বিষয়টি উর্ধ্বতন মহলে অবগত করা হয়েছে’। তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে ঘটনার সত্যতা রয়েছে’।

এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুন খন্দকার বলেন, ‘এ ধরনের একটি অভিযোগ পাওয়ার পর আমি ভিকটিমের বাড়িতে গিয়ে তার বক্তব্য গ্রহন করেছি। কিন্তু অভিযুক্ত শিক্ষক ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন। যে কারনে তার কোন বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি’। তিনি বলেন, ‘ঘটনা তদন্তের পর অবশ্যই অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে’।