বিএনপি-জামায়াত আলেম-ওলামাগণকে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে তাদের সাথে প্রতারণা করেছে – আবু জাহির

ইমাম ও ওলামা সমাবেশে প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখছেন এমপি আবু জাহির
ইমাম ও ওলামা সমাবেশে প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখছেন এমপি আবু জাহির

হবিগঞ্জ সদর, লাখাইশায়েস্তাগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট মোঃ আবু জাহির বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত আলেম-ওলামাগণকে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে তাদের সাথে প্রতারণা করেছে। কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার আলেমদের পাশে থেকেছে। কওমী মাদ্রাসাকে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। ইমাম-মোয়াজ্জিন কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করে সম্মানীর ব্যবস্থা করেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট দাবি করতে হয় না। তিনি নিজে থেকেই সকলের চাহিদা পূরণ করেন। ভবিষ্যতে যদি আমি সংসদে যেতে পারি তাহলে আপনাদের সম্মানী বৃদ্ধির ব্যাপারে কথা বলব।

বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জ জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে বর্তমান সরকারের ১০ পূর্তিতে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদক প্রতিরোধ এবং মসজিদ মাদ্রাসার বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড উপলক্ষে ইমাম ও ওলামা সমাবেশে প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি আবু জাহির বলেন, আমি আপনাদের কাজ করার জন্যই এমপি হয়েছি। বিগত ১০ বছরে হবিগঞ্জ, লাখাই ও শায়েস্তাগঞ্জের এমন কোনও মসজিদ-মাদ্রাসাসহ সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে একাধিকার সরকারি অনুদান এনে দিয়েছি। ভবিষ্যতেও এই উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে চাই।

তিনি আরো বলেন, যারা মানুষ হত্যা করে; তারা ইসলামের শত্রু। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থাকাকালে একসাথে দেশের ৬৩টি জেলায় বোমা হামলা হয়েছিল। তারা জঙ্গি-সন্ত্রাসের মদদদাতা। তাদের দিয়ে দেশের উন্নয়ন আশা করা যায় না।
হবিগঞ্জসহ সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডের কথা তুলে ধরে আগামী নির্বাচনেও বর্তমান সরকারের সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডের কথা সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরতে আলেম-ওলামাবৃন্দের প্রতি অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে জাতীয় ইমাম সমিতি হবিগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা হাফেজ সামছুল হক সাদী বলেন, বর্তমান সরকার সারাদেশে উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি করেছে। বিশেষ করে হবিগঞ্জে শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ স্থাপনসহ অভাবনীয় উন্নয়ন সম্পন্ন করেছেন এমপি আবু জাহির। হবিগঞ্জের উন্নয়নের স্বার্থে সবার উচিত এডভোকেট মোঃ আবু জাহিরকে আবারো এমপি নির্বাচিত করা। এ সময় উপস্থিত আলেম-ওলামাবৃন্দ তার বক্তৃতার প্রতি সমর্থন জানান।

জাতীয় ইমাম সমিতি হবিগঞ্জের সহ সভাপতি মাওলানা কাজী এমএ জলিল ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আমিনুল হক এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি’র বক্তৃতা করেন হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান শহীদ উদ্দিন চৌধুুরী, হবিগঞ্জ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ পরিচালক মাওলানা শাহ নজরুল ইসলাম, হবিগঞ্জ মসজিদ সমন্বয় সুন্নী সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ রইছ মিয়া।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন হবিগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মোঃ ফারুক মিয়া, শায়েস্তাগঞ্জ কামিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল মুনায়েম, হবিগঞ্জ শাহী ঈদগাহের খতিব মাওলানা গোলাম মোস্তফা নবীনগরী, বেফাকুল মাদারিছিন ওয়াল আরাবিয়ার সভাপতি মাওলানা মোঃ আব্দুল্লাহ আকিলপুরী, মাওলানা আবু সালেহ সাদী, মাওলানা আলমগীর হোসেন সাইফী, মুফতি মাওলানা আশরাফুল ওয়াদুদ, মাওলানা মহিবুর রহমান, মাওলানা হাবিবুর রহমান।

অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান শামীম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুক, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, উপাধ্যক্ষ মাওলানা শফিকুর রহমান, মাওলানা ফরিদ আহমদ, মুফতি মাওলানা রফিকুল ইসলাম, সুপার মাওলানা আজিজুল ইসলাম, মুহতামিম মাওলানা আব্দুল লতিফ, মুহতামিম সোহাইল আহমেদ, মুহতামিম মাওলানা রজব আলী, সুপার মাওলানা বদরুর রেজা সেলিম, মাওলানা এমদাদুর রহমান, মাওলানা গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা আব্দুল মজিদ। দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন ইফা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাওলানা আব্দুল মজিদ পিরিজপুরী।