কে হচ্ছেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার প্রথম চেয়ারম্যান?

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৯
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন - ২০১৯ ইং

এম. এইছ. চৌধুরী জুনাইদ, শায়েস্তাগঞ্জঃ  হবিগঞ্জের নবগঠিত শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার প্রথম চেয়ারম্যান কে হচ্ছেন ? রাষ্ট  ঘোষিত  সর্বশেষ ৪৯২তম উপজেলা হচ্ছে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা। হবিগঞ্জ জেলার অন্য ৮টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হলেও বাকি ছিল শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নির্বাচন। কোন ভাগ্যবান হচ্ছেন দেশের সর্বশেষ উপজেলা শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার প্রথম চেয়ারম্যান? এ নিয়ে আলোচনার যেন শেষ নেই।

অনেক প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে আগামী ১৮ জুন পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এ উপজেলার নির্বাচন। প্রথমবার নির্বাচিত চেয়ারম্যানের কলা কৌশলের উপরই নির্ভর করছে নতুন এ উপজেলার উন্নয়ন আর অগ্রগতির ধারা কেমন হবে। এমনটাই মনে করছেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সাধারণ ভোটার এবং স্থানীয় সচেতন মহল। সবদিক ভেবেই যোগ্য প্রার্থী দেখে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করতে চান সাধারণ মানুষ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, অনুষ্ঠিতব্য এ উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এবং নূরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলাল ও হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহমদ খান।

তানভীর চৌধুরী নামে জনৈক ভোটার বলেন, প্রথমবার তাদের উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এতে এমন একজন প্রার্থী নির্বাচিত করতে চান যেন প্রথমবার নির্বাচিত চেয়ারম্যানকে, পরবর্তী চেয়ারম্যানরা অনুসরণ অনুকরণ করে কাজ করেন।

বঙ্গবন্ধুর কারণেই আমরা পেয়েছি স্বাধীন বাংলাদেশ – আবু জাহির

শায়েস্তাগঞ্জের জহুর চান বিবি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন রুমী বলেন, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা হিসেবে সর্বকনিষ্ট হলেও দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা এটি। কারণ হিসেবে বলা যায় এখানে রয়েছে ক্রমবর্ধমান একটি শিল্পাঞ্চল। সবাই মনে করেন জনবান্ধব যোগ্য ও সরকার ঘনিষ্ট একজন প্রার্থীকে নির্বাচিত করা প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল বলেন, তিনি সব সময়ই জনগণের সঙ্গে ছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে এলাকার মানুষের প্রয়োজনে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন। এখনও তিনি ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন। বর্তমান সরকারের আমলে শায়েস্তাগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ হয়েছে। তাই তিনি নির্বাচিত হলে এ উন্নয়ন ধারাকে ধরে রেখে সকল উন্নয়ন কাজকে তরান্বিত করতে কাজ করবেন।