২৬ মে, ২০২০ইং, রোজ: মঙ্গলবার
19.4 C
Habiganj
২৬ মে, ২০২০ইং, রোজ: মঙ্গলবার
হোম ইসলামিক “সৃষ্টিকূলের একমাত্র মালিক আল্লাহ তায়ালা” এ বিষয়ে কুরআন কি বলে?

“সৃষ্টিকূলের একমাত্র মালিক আল্লাহ তায়ালা” এ বিষয়ে কুরআন কি বলে?

هُوَ الَّذِي خَلَقَ لَكُم مَّا فِي الْأَرْضِ جَمِيعًا ثُمَّ اسْتَوَىٰ إِلَى السَّمَاءِ فَسَوَّاهُنَّ سَبْعَ سَمَاوَاتٍ ۚ وَهُوَ بِكُلِّ شَيْءٍ عَلِيمٌ

তিনিই পৃথিবীতে তোমাদের জন্য সমস্ত জিনিস সৃষ্টি করলেন৷ তারপর ওপরের দিকে লক্ষ করলেন এবং সাত আকাশ বিন্যস্ত করলেন তিনি সব জিনিসের জ্ঞান রাখেন ৷ (বাকারাহ : ২৯)

أَمْ لَهُمْ نَصِيبٌ مِّنَ الْمُلْكِ فَإِذًا لَّا يُؤْتُونَ النَّاسَ نَقِيرًا

রাষ্ট্র পরিচালনায় তাদের কোন অংশ আছে কি? যদি তাই হতো, তাহলে তারা অন্যদেরকে একটি কানাকড়িও দিতো না৷ (নেসা : ৫৩)

لَّقَدْ كَفَرَ الَّذِينَ قَالُوا إِنَّ اللَّهَ هُوَ الْمَسِيحُ ابْنُ مَرْيَمَ ۚ قُلْ فَمَن يَمْلِكُ مِنَ اللَّهِ شَيْئًا إِنْ أَرَادَ أَن يُهْلِكَ الْمَسِيحَ ابْنَ مَرْيَمَ وَأُمَّهُ وَمَن فِي الْأَرْضِ جَمِيعًا ۗ وَلِلَّهِ مُلْكُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ وَمَا بَيْنَهُمَا ۚ يَخْلُقُ مَا يَشَاءُ ۚ وَاللَّهُ عَلَىٰ كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

যারা বলে, মারয়াম পুত্র মসীহই আল্লাহ , তারা অবশ্যি কুফরী করেছে৷ হে মুহাম্মাদ ! ওদেরকে বলে দাও, আল্লাহ যদি মারয়াম পুত্র মসীহকে, তার মাকে ও সারা দুনিয়াবাসীকে ধ্বংস করতে চান, তাহলে তাঁকে তাঁর এ সংকল্প থেকে বিরত রাখার ক্ষমতা কার আছে? আল্লাহ তো আকাশসমূহের এবং এ দু’য়ের মধ্যে যা কিছু আছে সবকিছুর মালিক৷ তিনি যা চান সৃষ্টি করেন৷ তাঁর শক্তি সবকিছুর ওপর পরিব্যাপ্ত৷ (মায়েদাহ : ১৭)

قُلْ أَتَعْبُدُونَ مِن دُونِ اللَّهِ مَا لَا يَمْلِكُ لَكُمْ ضَرًّا وَلَا نَفْعًا ۚ وَاللَّهُ هُوَ السَّمِيعُ الْعَلِيمُ

তাদেরকে বলো, তোমরা কি আল্লাহকে বাদ দিয়ে এমন কিছুর ইবাদাত করছো, যা তোমাদের না ক্ষতি করার কোন ক্ষমতা রাখে না উপকারের? অথচ একমাত্র আল্লাহই তো সবার সবকিছু শোনেন ও জানেন ৷ (মায়েদাহ : ৭৬)

وَيَعْبُدُونَ مِن دُونِ اللَّهِ مَا لَا يَمْلِكُ لَهُمْ رِزْقًا مِّنَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ شَيْئًا وَلَا يَسْتَطِيعُونَ

আর তারা কি আল্লাহকে বাদ দিয়ে এমন সব সত্ত্বার পূজা করে যাদের না আকাশ থেকে তাদের কিছু রিযিক দেবার ক্ষমতা ও অধিকার আছে, না পৃথিবী থেকে? (নাহল : ৭৩)

وَقُلِ الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي لَمْ يَتَّخِذْ وَلَدًا وَلَمْ يَكُن لَّهُ شَرِيكٌ فِي الْمُلْكِ وَلَمْ يَكُن لَّهُ وَلِيٌّ مِّنَ الذُّلِّ ۖ وَكَبِّرْهُ تَكْبِيرًا

আর বলো, সেই আল্লাহর প্রশংসা, যিনি কোনো পুত্রও গ্রহণ করেননি৷ তাঁর বাদশাহীতে কেউ শরীকও হয়নি এবং তিনি এমন অক্ষমও নন যে, কেউ তাঁর সাহায্যকারী ও নির্ভর হবে৷” আর তাঁর শ্রেষ্ঠত্ব বর্ণনা করো, চূড়ান্ত পর্যায়ের শ্রেষ্ঠত্ব৷ (বনী ইসরাঈল : ১১১)

قُلْ مَن بِيَدِهِ مَلَكُوتُ كُلِّ شَيْءٍ وَهُوَ يُجِيرُ وَلَا يُجَارُ عَلَيْهِ إِن كُنتُمْ تَعْلَمُونَ

তাদেরকে জিজ্ঞেস করো, বলো যদি তোমরা জেনে থাকো, কার কর্তৃত্ব চলছে প্রত্যেকটি জিনিসের ওপর? আর কে তিনি যিনি আশ্রয় দেন এবং তাঁর মোকাবিলায় কেউ আশ্রয় দিতে পারে না? (মুমিনূন : ৮৮)

قُلِ ادْعُوا الَّذِينَ زَعَمْتُم مِّن دُونِ اللَّهِ ۖ لَا يَمْلِكُونَ مِثْقَالَ ذَرَّةٍ فِي السَّمَاوَاتِ وَلَا فِي الْأَرْضِ وَمَا لَهُمْ فِيهِمَا مِن شِرْكٍ وَمَا لَهُ مِنْهُم مِّن ظَهِيرٍ

 (হে নবী! এ মুশরিকদেরকে) বল, আল্লাহকে বাদ দিয়ে যেসব মাবুদকে তোমরা নিজেদের উপাস্য মনে করে নিয়েছ তাদেরকে ডেকে দেখ৷ তারা না আকাশে কোন অনু পরিমাণ জিনিসের মালিক, না পৃথিবীতে৷ আকাশ ও পৃথিবীর মালিকানায় তারা শরীকও নয়৷ তাদের কেউ আল্লাহর সাহায্যকারীও নয়৷ (সাবা : ২২)

يُولِجُ اللَّيْلَ فِي النَّهَارِ وَيُولِجُ النَّهَارَ فِي اللَّيْلِ وَسَخَّرَ الشَّمْسَ وَالْقَمَرَ كُلٌّ يَجْرِي لِأَجَلٍ مُّسَمًّى ۚ ذَٰلِكُمُ اللَّهُ رَبُّكُمْ لَهُ الْمُلْكُ ۚ وَالَّذِينَ تَدْعُونَ مِن دُونِهِ مَا يَمْلِكُونَ مِن قِطْمِيرٍ

তিনি দিনের মধ্যে রাতকে এবং রাতের মধ্যে দিনকে প্রবেশ করিয়ে নিয়ে আসেন৷ চন্দ্র ও সূর্যকে তিনি অনুগত করে রেখেছেন৷ এসব কিছু একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত চলে যাচ্ছে৷ এ আল্লাহই (এ সমস্তই যাঁর কাজ) তোমাদের রব, রাজত্ব তারই৷ তাঁকে বাদ দিয়ে অন্য যাদেরকে তোমরা ডাকছো তারা তো একটি শুকনো ভূমির অধিকারীও নয়৷ (ফাতির : ১৩)

أَمِ اتَّخَذُوا مِن دُونِ اللَّهِ شُفَعَاءَ ۚ قُلْ أَوَلَوْ كَانُوا لَا يَمْلِكُونَ شَيْئًا وَلَا يَعْقِلُونَ

এসব লোক কি আল্লাহকে বাদ দিয়ে অন্যদেরকে সুপারিশকারী বানিয়ে রেখেছে? তাদেরকে বলো, তাদের ক্ষমতা ও ইখতিয়ারে যদি কিছু না থাকে এবং তারা কিছু না বুঝে এমতাবস্থায়ও কি সুপারিশ করবে ?  (যুমার : ৪৩)

وَلَا يَمْلِكُ الَّذِينَ يَدْعُونَ مِن دُونِهِ الشَّفَاعَةَ إِلَّا مَن شَهِدَ بِالْحَقِّ وَهُمْ يَعْلَمُونَ

এরা তাকে বাদ দিয়ে যাদের ডাকে তারা শাফায়াতের কোন ইখতিয়ার রাখে না৷ তবে যদি কেউ জ্ঞানের ভিত্তিতে ন্যায় ও সত্যের সাক্ষ্য দান করে৷ (যুখরুফ : ৮৬)

سَيَقُولُ لَكَ الْمُخَلَّفُونَ مِنَ الْأَعْرَابِ شَغَلَتْنَا أَمْوَالُنَا وَأَهْلُونَا فَاسْتَغْفِرْ لَنَا ۚ يَقُولُونَ بِأَلْسِنَتِهِم مَّا لَيْسَ فِي قُلُوبِهِمْ ۚ قُلْ فَمَن يَمْلِكُ لَكُم مِّنَ اللَّهِ شَيْئًا إِنْ أَرَادَ بِكُمْ ضَرًّا أَوْ أَرَادَ بِكُمْ نَفْعًا ۚ بَلْ كَانَ اللَّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ خَبِيرًا

হে নবী (সা)! বদ্দু আরবদের মধ্যে যাদেরকে পিছনে ছেড়ে যাওয়া হয়েছিল এখন তারা এসে অবশ্যই তোমাকে বলবেঃ “আমাদেরকে আমাদের ধন-মাল ও সন্তান-সন্ততিদের চিন্তা-ই ব্যস্ত রেখেছিল, আপনি আমাদের জন্য মাগফিরাতের দোয়া করুন৷” এ লোকেরা নিজেদের মুখে সেসব কথা বলছে যা তাদের অন্তরে থাকে না৷ তাদেরকে বলো ঠিক আছে৷ ইহাই যদি সত্য হয়ে থাকে তা হলে তোমাদের ব্যাপারে আল্লাহর ফায়সালাকে কার্যকর হওয়া থেকে বাধাদানের সামান্য ক্ষমতা কি কারো আছে যদি তিনি তোমাদের কোন ক্ষতি করতে চান; অথবা চান কোন কলাণ দান করতে ? তোমাদের কাজ-কর্ম সম্পর্কে তো আল্লাহই ভালভাবে অবহিত। (ফাতহ : ১১)

وَلِلَّهِ مُلْكُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضِ ۚ يَغْفِرُ لِمَن يَشَاءُ وَيُعَذِّبُ مَن يَشَاءُ ۚ وَكَانَ اللَّهُ غَفُورًا رَّحِيمًا

আকাশ মণ্ডলী ও পৃথিবীর বাদশাহীর (প্রভূত্ব ও প্রশাসন ক্ষমতা) একচ্ছত্র মালিক একমাত্র আল্লাহ৷ তিনি যাকে ইচ্ছা ক্ষমা করে দেন এবং যাকে ইচ্ছা শাস্তি দেন৷ আল্লাহ-ই ক্ষমাশীল ও করুণাময়৷ (ফাতহ : ১৪)

3,672FansLike
1,432FollowersFollow
2,458FollowersFollow
2,145SubscribersSubscribe

সর্বশেষ সংবাদ

ঈদ উপলক্ষে সাতছড়ি ও চা-বাগানে ঘুরতে এসে সড়ক দুর্ঘটনা

গিরি ধন সরকারঃ পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান, সুরমা চা বাগান, তেলিয়াপাড়া চা বাগানে হাজারো মানুষের ঢল নেমেছে। বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি...

হবিগঞ্জে ঈদের জামাত হয়নি কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ; প্রধান খতিব নামাজ পড়ালেন কোর্ট জামে মসজিদে

বছরে দু'বার মুসলিমদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পালিত হয় সারা বিশ্বে। প্রতি বছর মুসলমানদের আনন্দ উৎসব ঈদ উল ফিতর ও ঈদ উল আযহা বেশ...

মাধবপুরে ঈদ উপলক্ষে মিষ্টিমুখ করালেন নো থ্যাংকস নামের সামাজিক সংগঠন

গিরি ধন সরকারঃ হবিগঞ্জ মাধবপুরে রমজানের রোজার শেষে সোমবার (২৫ মে) পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। তবে বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে এবারের ঈদে...

পানিতে ঈদের নামাজ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল

খুলনার কয়রায় ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের পাশে পানিতে দাঁড়িয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। ২০০৯ সালের এ দিন আইলার আঘাতে লণ্ডভণ্ড হয় উপকূলীয় অঞ্চল। আইলায় কয়রার...

আজ দেশে নতুন করে ১৯৭৫ জন করোনায় আক্রান্ত

ঈদের দিনেও দেশে ১ হাজার ৯৭৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়ার কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এছাড়া গেল ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ২১ জন মারা...

জাতীয় কবি নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী আজ

আজ ১১ জ্যৈষ্ঠ- এ দিনটিতেই বাংলার সাহিত্যাকাশে অগ্নিবীণা হাতে ধূমকেতুর মতো আবির্ভাব ঘটে এ দেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের। বিদ্রোহী কবি হিসেবে সমধিক পরিচিত...