হবিগঞ্জে নতুন করে আরও ২ জনের করোনা শনাক্ত

হবিগঞ্জে আজ নতুন ২ জন করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছেন। দুজনেই সদর উপজেলার।

একজন চিকিৎসক ও একজন এনজিও এর স্বাস্থ্যকর্মী। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত ৫৪ জন।

একদিকে জেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের ১৯ কর্মকর্তা-কর্মচারি করোনায় আক্রান্ত, অন্যদিকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালসহ তিনটি হাসপাতাল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

জানা গেছে রবিবার হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল চালু হবে।

সব মিলিয়ে করুণ অবস্থায় পৌঁছেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজার হাজার মানুষ।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, হবিগঞ্জে ইতোমধ্যে ৫৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এরমধ্যে ১৯ জনই স্বাস্থ্য বিভাগের।

মূলত ২০ এপ্রিল লাখাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একজন চিকিৎসক ও একজন নার্স করোনায় আক্রান্ত হন। পরদিন ২১ এপ্রিল লাখাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরও একজন নার্স আক্রান্ত হন।

ওইদিন রাতেই লাখাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

এছাড়া চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ও ব্রাদার এবং মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ব্রাদারও করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সও বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

সবশেষ ২৫ এপ্রিল একদিনেই হবিগঞ্জে ২১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। যাদের মধ্যে ১১ জনই ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর আধুনিক হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও ল্যাব টেকনিশিয়ানসহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারি। এ অবস্থায় পরদিন রাতে জেলার ৩৩ লাখ মানুষের চিকিৎসা সেবার অন্যতম ভরসা হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল ৩ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়।

এতে বিপর্যয় দেখা দেয় চিকিৎসা সেবায়। জরুরী চিকিৎসা সেবায় বিত্তশালীরা প্রাইভেট হাসপাতালে ঝুঁকলেও বিপাকে পড়েন মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষরা।