হবিগঞ্জ জালাল স্টেডিয়ামে দুই শূন্য শূন্য ছয়’র আয়োজনে বসন্তবরণ

0
3

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট মোঃ আবু জাহির বলেছেন, প্রকৃতির বিচিত্র রূপ বাংলার সংস্কৃতিকে বিশিষ্ট মর্যাদায় ভূষিত করেছে। বসন্ত এই রূপ বৈচিত্র্যেরই একটি অংশ।

প্রাচীনকাল থেকে বাংলার বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন সম্প্রদায় ও জাতি-ধর্মের মানুষ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বসন্তবরণ করে আসছে। বাঙালির জীবনযাপনে, আচার-আচরণে, পালা-পার্বণে বসন্তের প্রভাব অনেক। এক সময় ফাল্গুন-চৈত্র মাসে গ্রামের ঘরে ঘরে নানা উৎসব লেগে থাকত। ইট-কাঠ-পাথরের নগরগুলোতে এখন শত নাগরিক ব্যস্ততা। যে কারণে আমরা নিজেদের ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি চর্চা থেকে দূরে সরে যাচ্ছি।

শনিবার বিকেলে হবিগঞ্জ জালাল স্টেডিয়ামে দুই শূন্য শূন্য ছয়’র আয়োজনে বসন্তবরণ উপলক্ষে ও ঘুরি উৎসবের উদ্বোধন এবং পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি আবু জাহির আরো বলেন, সুস্থ সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমেই আমাদের পরবর্তী প্রজন্মকে আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলা সম্ভব। এছাড়া সকল অপশক্তিকে রুখে দাঁড়াতে সংস্কৃতি চর্চার বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, দুই শূন্য শূন্য ছয় পরিবার প্রতি বছরই এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। যা হবিগঞ্জ জেলার তরুণ প্রজন্মকে বাঙালি সংস্কৃতির চর্চায় আগ্রহী করে তুলতে ভূমিকা রাখবে। অনুষ্ঠানটিকে আরো বড় পরিসরে আয়োজনে অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও সহযোগিতার আশ^াস প্রদান করেন এমপি আবু জাহির।

সংগঠনের সভাপতি সাইফ আহছানের সভাপতিত্বে ও আশীষ দাসের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ফজলুল জাহিদ পাভেল, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা রফিক, হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ আলফাজ উদ্দিন, বিকেজিসি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধাংশু কুমার কর্মকার, জেলা যুবলীগ সভাপতি আতাউর রহমান সেলিম।

অনুষ্ঠানে দুই শূন্য শূন্য ছয়ের সাধারণ সম্পাদক পাভেল হাসানসহ নানা শ্রেণি-পেশার সহশ্রাধিক লোকজন উপস্থিত ছিলেন। পরে বসন্তবরণ উপলক্ষে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ২২ বিজয়ীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এমপি আবু জাহির।

একটি উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে