হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সকল ইউনিট, উপজেলা, পৌর এবং কলেজ কমিটি বিলুপ্ত

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল হবিগঞ্জ জেলা

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক হবিগঞ্জ জেলার সকল ইউনিট, উপজেলা, পৌর এবং কলেজ কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করেন জেলা ছাত্রদল সভাপতি এমদাদুল হক ইমরান ও সাধারন সম্পাদক রুবেল আহমদ চৌধুরী।

গত সোমবার বিকালে (২৭ জানুয়ারি) হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রদল সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক সাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানয় যে, সংগঠনিক গতিশীলতা বৃদ্ধির লক্ষে মেয়াদ উর্ত্তীন ও পুর্নঃগঠনের অংশ হিসেবে হবিগঞ্জ জেলার সকল ইউনিট, হবিগঞ্জ সদর, হবিগঞ্জ পৌরসভা, বৃন্দাবন সরকারি কলেজ, লাখাই উপজেলা, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা, শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা, শায়েস্তাগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ, নবিগঞ্জ উপজেলা, নবিগঞ্জ সরকারি ডিগ্রী কলেজ, বাহুবল উপজেলা, মিরপুর সরকারি আলিফ সোবহান কলেজ, চুনারুঘাট উপজেলা, চুনারুঘাট পৌরসভা, চুনারুঘাট সরকারি কলেজ, মাধবপুর উপজেলা, মাধবপুর পৌরসভা, বানিয়াচং উপজেলা, বানিয়াচং জনাব আলী ডিগ্রী কলেজ, আজমিরীগঞ্জ উপজেলা, আজমিরীগঞ্জ পৌরসভার কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদ ছাত্রদল হবিগঞ্জ জেলা প্রেস বিজ্ঞপ্তি
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদ ছাত্রদল হবিগঞ্জ জেলার প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

এই সংবাদে তৃণমূল ছাত্রদল ও মাঠকর্মীদের মাঝে মিশ্র পতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। কেউ কেউ ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের এই ভূমিকায় নতুন উদ্যমে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা ছাত্রদলের এক দায়িত্বশীল বলেন, “সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের অর্থনৈতিক অপকর্ম ঢাকতে তরিগড়ি করে কমিটি বিলুপ্ত ঘোষনা করা হয়েছে।”

আরো পড়ুনঃ
ছাত্রদল হবিগঞ্জ জেলা শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন
ছাত্রদলের কমিটি বাতিলের দাবিতে পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভ মিছিল

বিলুপ্ত কমিটির মাধবপুর উপজেলা সভাপতি মির্যা ইকরাম ‘হবিগঞ্জ নিউজ’কে বলেন, “এটি সম্পূর্ন অপমানমুলক একটি কাজ করা হয়েছে। নবিগঞ্জের তুচ্ছ ঘঠানকে কেন্দ্র করে কাউকে কোন কিছু না জানিয়ে হঠাৎ করে নেয়া একটি সিদ্ধান্ত।”

পৌর ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী রুমেল খান চৌধুরী বলেন, “ছাত্রদল তার আপন গতি ফিরে পাবে। প্রত্যাশা মেধাবী ও রাজপথের কর্মীদের মূল্যায়ন হবে।

সদর থানা ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী শেখ মোঃ রাসেল হবিগঞ্জ নিউজ কে বলেন, আগামীর ছাত্রদল হবে সংগঠিত ও পকেটের লোক মুক্ত। তৃণমূল নেতৃবৃন্দের দাবি তারা এখন নব্বইয়ের ছাত্রদল চায়। আওয়ামী ও মাদকাসক্তদের হাত থেকে মুক্তি পাবে ঐতিহ্যেবাহী ছাত্রদল এই আশা করেন তিনি।

বৃন্দাবন সরকারি কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি প্রার্থী সৈয়দ আশরাফ আহমেদ ‘হবিগঞ্জ নিউজ’কে বলেন, “সাংগঠনিক গতিশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ছাত্রদলকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা থেকে ছাত্রদল এই কমিটিগুলিকে বিলুপ্ত করেছে। ছাত্রদলের সাংগঠনিক অভিভাবক দেশনায়ক তারেক রহমান ও ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ শীঘ্রই রাজপথের কর্মীদের দ্বারা পুনরায় কমিটিগুলি গঠন করবেন এই প্রত্যাশা করি।”

এই বিষয়ে জানতে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।