বানিয়াচংয়ে মতিউর হত্যা মামলায় ৫২ জন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার নোয়গাঁও গ্রামের মতিউর রহমান হত্যার মূল নায়ক আরজু মিয়াসহ ৫২ আসামিকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

রোববার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শাহীনুর আক্তার এ আদেশ দেন।

আসামিরা হলেন- রুবল মিয়া, শিশু মিয়া, সেলিম মিয়া, আশিকুর রহমান, ছায়েদুর মিয়া, শামছু মিয়া, ওবায়দুর মিয়া, আফজল মিয়া, আবু সায়েদ, সাজিদুর রহমান, জসিম মিয়া, কাদির মিয়া, ছাব্বির মিয়া, সামায়ুন মিয়া, স্বাধীন মিয়া, রবুজ মিয়া, মিতু মিয়া, নূর উদ্দিন, মতিউর মিয়া, জাবেদ মিয়া, হেলাল উদ্দিন, ছালিম উদ্দিন, হোসেন মিয়া, রাকিব মিয়া, মফিকুর রহমান, রোহান মিয়া, সোহাগ মিয়া, হাছান উদ্দিন, আনহার উদ্দিন, শরীফ উদ্দিন, ছুরত উল্লা, রঙু মিয়া, কাউছার মিয়া, আবিদুর মিয়া, আব্দুর রেজ্জাক, শফিকুল মিয়া, সোহাগ মিয়া, কায়েস মিয়া, রফু মিয়া, জাবেদ মিয়া, সাদ্দাম মিয়া, সাইফুল মিয়া, মজিবুর রহমান ওরফে ফয়জুর, রকিব মিয়া, বাছিত মিয়া, সাইফুর মিয়া, ছাদিক মিয়া, আছকির মিয়া, তাহির মিয়া, কাদির মিয়া ও মজিবুর রহমান।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বানিয়াচং উপজেলার বড়ইউড়ি ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আরজু মিয়া এবং আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ মিয়ার মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে গত ১৩ ডিসেম্বর সকালে আরজু মিয়ার নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে ফরিদ মিয়ার লোকজনের বাড়ি-ঘরে হামলা চালানো হয়। এ সময় পিটিয়ে হত্যা করা হয় মতিউর রহমানকে। আহত করা হয় অর্ধশতাধিক লোকজনকে।

এ ঘটনার ৪দিন পর ১৭ ডিসেম্বর নিহত মতিউরের ছেলে সাখাওয়াত হোসেন বাদী হয়ে আরজু মিয়াকে প্রধান করে ৭২ জনের বিরুদ্ধে বানিয়াচং থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলায় এফআইআরভুক্ত ৫২ আসামি আদালতে রোববার দুপুরে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে বিচারক তাদের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

সহকারী পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা জানান, হত্যা মামলার বেশ কয়েকজন আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রাখতে দফায় দফায় আলোচনা করা হয়েছে।