জাতীয় কবি নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী আজ

জাতীয় কবি নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী আজ

আজ ১১ জ্যৈষ্ঠ- এ দিনটিতেই বাংলার সাহিত্যাকাশে অগ্নিবীণা হাতে ধূমকেতুর মতো আবির্ভাব ঘটে এ দেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের।

বিদ্রোহী কবি হিসেবে সমধিক পরিচিত এই কবির লেখনী বাংলা সাহিত্যের গতিপথ পাল্টে দেয়- তৈরি হয় বিদ্রোহ-প্রতিবাদ ও প্রতিরোধের ধারা, যা ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংগ্রাম থেকে শুরু করে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ হয়ে এখনও বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে ভূমিকা রেখে চলেছে। নজরুল ছিলেন সাম্যের চেতনায় উদ্বুদ্ধ মানুষ। ছিলেন ধ্যানে-জ্ঞানে, নিঃশ্বাসে-বিশ্বাসে, চিন্তা-চেতনায় পুরোদস্তুর অসাম্প্রদায়িক।

কাজী নজরুল ইসলাম ১৮৯৯ সালের এই দিনে বর্ধমান জেলার আসানসোলের জামুরিয়া থানার চুরুলিয়া গ্রামে জন্ম নেন। তার ডাকনাম ছিল ‘দুখু মিয়া’। শৈশবেই পিতৃহারা নজরুলকে বাধার দুর্লঙ্ঘ পর্বত পাড়ি দিতে হয়। তার সম্পর্কে যথার্থই লিখেছেন কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর :’আয় চলে আয় রে ধূমকেতু/ আঁধারে বাঁধ অগ্নিসেতু,/ দুর্দিনের এই দুর্গশিরে/ উড়িয়ে দে তোর বিজয় কেতন।’

জাতীয় কবির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আজ ইদুল ফিতরের দিনে বাণী দিয়েছেন রাজনৈতিক, সামাজিক সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের ব্যাক্তিরা

রাজনৈতিক ব্যাক্তিরা পৃথক বাণী দিয়েছেন। জাতীয় দৈনিকগুলো প্রকাশ করেছে বিশেষ ক্রোড়পত্র। সরকারি-বেসরকারি চ্যানেল ও রেডিও স্টেশনগুলো ঈদের অনুষ্ঠানের পাশাপাশি প্রচার করছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।

ছোটগল্প, উপন্যাস ও নাটক লিখলেও কাজী নজরুল ইসলামের মূল পরিচয় কবি হিসেবে। তিনি প্রায় তিন হাজার গান রচনা এবং সুর করেছেন, যা নজরুলসঙ্গীত হিসেবে পরিচিত। বাংলা সঙ্গীতের ক্ষেত্রে তিনি ইসলামী সঙ্গীত বা গজলের নতুন এক ধারাও সৃষ্টি করেছেন। কাজী নজরুলের রচিত ‘চল চল চল’ বাংলাদেশের রণসঙ্গীত। তিনি ১৯টি রাগের সৃষ্টি করেন, যা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল।

মধ্যবয়সে কাজী নজরুল পিকস্‌ ডিজিজে আক্রান্ত হন এবং এক সময় তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন। ১৯৭২ সালের ২৪ মে ভারত সরকারের অনুমতিক্রমে কবি নজরুলকে সপরিবারে বাংলাদেশে নিয়ে আসা হয়।

এ সময় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাকে জাতীয় কবির মর্যাদা দেন। ১৯৭৬ সালে কবিকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দেওয়া হয়। তাকে ‘একুশে পদকেও’ সম্মানিত করা হয়। একই বছরের ২৯ আগস্ট তার মৃত্যু ঘটে।

উল্লেখ্য, এই বছর করোনা মহামারীর প্রকোপে নজরুল জয়ন্তীর জাতীয় ও ব্যাক্তি উদ্যোগের অনুষ্ঠানমালা বাতিল করা হয়েছে।