১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
দুপুর ১:৫৩

জনপ্রিয় ৫ সংবাদ

আরো কিছু সংবাদ

চুনারুঘাটে তিনটি চা বাগান বন্ধ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার দেউন্দি চা বাগানে বকেয়া পাওনা কারণে কোম্পানির তিনটি চা বাগানের শ্রমিকরা অসন্তোষ হওয়ায় বাগানে গ্যাস ও হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ লাইন সংযোগ কেটে দেওয়া হয়েছে ।

বিপাকে পরেছে কোম্পানি মালিক । এ অবস্থা চা উৎপাদন ভালো না হওয়ায় দেউন্দি, লাল চান্দ ও মাধবপুর উপজেলায় নোয়াপাড়া চা বাগান বন্ধ হয়ে গেছে । ফলে গত সপ্তাহ ধরে শ্রমিকদের সাপ্তাহিক মজুরি বন্ধ রয়েছে । বকেয়া রয়েছে শ্রমিকদের এরিয়ার বিল ও দোল পূজার বোনাস দেয়া হয় নি ।

এ নিয়ে তিনটি চা বাগানে শ্রমিকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে । খাদ্য সংকটে পড়তে যাচ্ছে বাগানের প্রায় তিন হাজার শ্রমিক ।

জানা যায় , বিএনপি সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী মুর্শেদ খান মালিকানাধীন লস্করপুর ভ্যালীতে দেউন্দি চা কোম্পানি অধীনে দেউন্দি , লাল চান্দ ও নোয়াপাড়া চা বাগানে শ্রমিকরা কাজ করেন । দীর্ঘ দিন ধরে চায়ের মূল্য কমে যাওয়া এবং ভারতীয় চা দেশের ভেতর প্রবেশের কারণে প্রতিটি চা বাগান গুলো লোকসানের দিকে যাচ্ছে ।

এ লোকসানের কারণে তিনটি চা বাগানে প্রায় দেড় কোটি টাকা গ্যাস ও হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় সকল সংযোগ লাইন বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ । এ অবস্থা তিনটি চা বাগানের ফ্যাক্টরী বন্ধ রয়েছে । তবে ফ্যাক্টরী বন্ধ হওয়ার ফলে চা প্রক্রিয়াজাত করণ হচ্ছে না । মারাত্মক বিপাকে পরেছে বাগানের মালিক। এ অবস্থায় চা বাগানের শ্রমিকদের সাপ্তাহিক মজুরি , দোল পূজা বোনাস দিতে পারেনি বাগান কর্তৃপক্ষ ।

এর মধ্যে ও শ্রমিকরা বাগানে চা গাছ টিক রাখতে হলে পাতা না কাটলে চা গাছ নষ্ট হয়ে যায় । পাতা চয়ন অব্যাহত রয়েছে ।

এ বিষয়ে দেউন্দি কোম্পানির সিনিয়র ম্যানেজার রিয়াজ উদ্দিন জানান , ভারতীয় চা অবৈধ ভাবে দেশে প্রবেশ করছে এবং বাজারে ভারতীয় চা সয়লাব হওয়ায় চায়ের মূল্য কমে যায় । বাগানে চা উৎপাদনের চেয়ে বিক্রয় মূল্য কম । সব মিলিয়ে চা বাগান লোকসান রয়েছে ।

এছাড়া ও দীর্ঘ দিন ধরে ব্যাংক কোম্পানি লোন পাস না করায় তিনটি চা বাগানের শ্রমিকদের বকেয়া বিল ও মজুরি দিতে পারছি না । তবে চেষ্টা করছি শ্রমিকদের পাওনা টাকা দ্রুত এ সমস্যা সমাধান করবো ।