পর্যটনকে কাজে লাগিয়ে বিপুল পরিমান বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে পারে বাংলাদেশ – এলিজা

0
2

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বিশ্ব পর্যটক ও লেখক এলিজা বিনতে এলাহী বলেন,পর্যটনকে কাজে লাগিয়ে বিপুল পরিমান বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে পারে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলো সংরক্ষণ ও পর্যটনের গুরুত্ব কে তুলে ধরার জন্য ৩৩ তম জেলা সিরাজগঞ্জ ভ্রমণ শেষে ১৬ ফেব্রুয়ারী, শনিবার সিলেট বিভাগের ৪ টি জেলা ভ্রমনের উদ্দেশ্যে বের হয়েছেন।

হবিগঞ্জ এর বিভিন্ন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলো সরেজমিনের ঘুরে দেখার পাশাপাশি লিখিত তথ্য, লোককথা, স্থিরচিত্র ও ভিডিওগ্রাফির মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করছেন তিনি।

হবিগঞ্জের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলোর মধ্যে উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় গ্রাম বানিয়াচং, কমলারানীর সাগরদিঘি, রাজবাড়ী, বিথাঙ্গল আখড়া সহ নানা ঐতিহাসিক নিদর্শন ঘুরে দেখেছেন । ১৭ ফেব্রুয়ারি হবিগঞ্জ শহরের স্থাপনা গুলো ঘুরে মৌলভিবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা করবেন।

ব্যক্তিগত উদ্যোগে “কোয়েস্ট” (QUEST) নামক এই প্রজেক্ট এর আওতায় ৬৪ জেলার প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনাগুলোর বর্তমান অবস্থা সরেজমিনে ভ্রমন করে তথ্য সংগ্রহের পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে হেরিটেজ পর্যটনের ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করছেন স্থানীয়দের।

বাংলাদেশের ‘ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ এশিয়া’র সহকারী অধ্যাপক এলিজা এ পর্যন্ত বাংলাদেশের ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ৩৩ টি জেলার প্রত্নতাত্ত্বিক তথ্য সংগ্রহের কাজ সমাপ্ত করেছেন।

৫ম তম বিভাগ সিলেটের প্রথম জেলা হবিগঞ্জ দিয়ে সুরু হয়ে ২০ ফেব্রুয়ারি সুনামগঞ্জ ভ্রমনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে সিলেট বিভাগের হেরিটেজ ট্যুর।

শিক্ষা ছুটিতে নেদারল্যান্ডস এর ‘দ্য হেগ ইউনিভার্সিটি অফ এপ্লায়েড সায়েন্স’ এ অধ্যয়নরত এই পর্যটকের গবেষণার বিষয়ও ‘বাংলাদেশের পর্যটন শিল্প বিকাশে হেরিটেজ ট্যুরিজমের গুরুত্ব’ । বাংলাদেশ ছাড়াও তিনি ইতোপূর্বে বিশ্বের ৪৬ দেশের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন পরিভ্রমণ করেছেন।

এশিয়ার ভ্রমণের অভিজ্ঞতা নিয়ে রয়েছে তাঁর ২ টি তথ্যবহুল প্রকাশনা, ‘এলিজা’স ট্রাভেল ডায়েরী’ ও ‘এলিজা’স ট্রাভেল ডায়েরী-২’ ।

এছাড়াও ভ্রমণ অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি ‘ঢাকা ট্রিবিউন’ ও ‘এনটিভি অনলাইন’ সহ অন্যান্য পত্রপত্রিকায় নিয়মিত লিখছেন।

এলিজা মনে করেন বিশ্ব ভ্রমণের এই অভিজ্ঞতা বাংলাদেশে ‘হেরিটেজ ট্যুরিজম’ প্রসারের ক্ষেত্রে কাজে লাগবে।

বাংলাদেশের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলোর ঐতিহাসিক গুরুত্ব রয়েছে যা সঠিকভাবে সংরক্ষণ করলে শিক্ষা – গবেষণার পাশাপাশি দেশে পর্যটনশিল্প বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি মনে করেন ।

বানিয়াচং এর ঐতিহাসিক স্থান গুলো পরিদর্শনকালে কথা বলেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন হবিগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও বানিয়াচং প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম খোকনের সাথে। উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাব সদস্য আল আমিন খান।

এসময় তিনি ৬৪টি জেলায় বৃহৎ পরিসরের কাজটি সম্পাদনের ব্যাপারে প্রশাসন, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক কর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন ।