বঙ্গবন্ধুর কারণেই আমরা পেয়েছি স্বাধীন বাংলাদেশ – আবু জাহির

0
3

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট মোঃ আবু জাহির এমপি বলেছেন- জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কারণেই আমরা পেয়েছি স্বাধীন বাংলাদেশ। সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি তিনি। বাংলাদেশ যতদিন থাকবে তাঁর নাম মানুষের হৃদয়ে থাকবে।

তিনি বলেন, জাতির পিতার অবর্তমানে তাঁর অসমাপ্ত কাজগুলো করে যাচ্ছেন আজকের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগ নিপীড়িত ও শোষিত মানুষের পাশে থাকে। জনগণকে বঞ্চনা থেকে মুক্তি দেওয়াই আওয়ামী লীগের লক্ষ্য। জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করার পথে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।

মঙ্গলবার দুপুরে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি আবু জাহির বলেন, বঙ্গবন্ধুর তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সারা দেশে বছরব্যাপি পালন হচ্ছে মুজিব বর্ষ। এই বর্ষের প্রতিজ্ঞা হোক, ব্যক্তির উর্ধ্বে দল আর দলের উর্ধ্বে দেশ। এ সময় হবিগঞ্জ সদর উপজেলার প্রতিটি ওয়ার্ড এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি মুজিব বর্ষের কর্মসূচি পালনের আহবান জানান তিনি।

হবিগঞ্জ আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

তিনি বলেন, দলের মধ্যে এখনও মোস্তাকের প্রেতাত্মারা রয়েছে। মনে রাখতে হবে- যারা নৌকার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করে তারা প্রকৃত আওয়ামী লীগের লোক না। দল ক্ষমতায় থাকলে নেতাকর্মীরাও সম্মানিত হন। যে কোনও পরিস্থিতিতে আমি দলের বিপরীতে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না। অনেকের মনে দুঃখ কষ্ট থাকতে পারে। তবে মনে রাখতে হবে- যখনই নৌকার বিজয়ের ব্যাপারে সকলকে এক হয়ে কাজ করতে হবে।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল রশিদ তালুকদার ইকবালের পরিচালনায় সভায় অন্যানন্যের মাঝে জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আক্রাম আলী, সহ সভাপতি হাজী সফর আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হোসাইন মোঃ আদিল জজ মিয়া, আব্দুর রহমান, আব্দুল আউয়াল তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মুকিত, আব্দুল্লাহ সরদারসহ প্রতিটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রতিটি ওয়ার্ডের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ দলের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

সভায় কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নীতিগত অনুমোদনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানানো হয়। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়টি হবিগঞ্জ সদরে স্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সবিনয় অনুরোধ করা হয়। এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজী মুক্তার হোসেন, সদস্য আছকির মিয়া মেম্বার ও রিচি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল জব্বার ডেঙ্গুর মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

একটি উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে