১০ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
দুপুর ১:৪৬

জনপ্রিয় ৫ সংবাদ

আরো কিছু সংবাদ

মাধবপুরে করোনায় কর্মহীন বাকপ্রতিবন্ধী শমসের, প্রয়োজন সহযোগিতা

মোঃজাকির হোসেনঃ বিশ্বজুড়ে মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনা ভাইরাস। এতে বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা যেমন বেড়েই চলেছে। এর ভয়াবহতা বাংলাদেশে দিন দিন বাড়ছে। বেকারত্ব কর্মহীন হয়ে পড়েছে অসংখ্য মানুষ।

করোনার এই পরিস্থিতিতে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের মালঞ্চপুর গ্রামের মৃত মন্নাফ মিয়ার ছেলে বাক প্রতিবন্ধী শমসের মিয়া দুই সন্তানের পিতা করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়ায় খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন বলে জানা যায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাক প্রতিবন্ধী শমসের মিয়া অন্যের জায়গায় ছোট্ট একটি টিনের ঘরে বাস করছে। অসহায় হতদরিদ্র দুই সন্তানের পিতা শমসের মিয়া।

উল্লেখ্য, গত ৫ বছর আগে তার স্ত্রী রফিয়া বেগম মৃত্যুবরণ করেন। স্ত্রী মারা যাবার পর নেমে আসে তার পরিবারের আরও ভয়াবহ অবস্থা এতিম দুই সন্তানদেরকে নিয়ে। এমতা অবস্থায় করোনার কারনে বাকপ্রতিবন্ধী শমসের মিয়া হয়ে পড়েছে কর্মহীন বেকার।

পাচ্ছেনা কোন সরকারি ত্রাণ। তবে তার এক মেয়ে বলেন, “আমার বাবা প্রতিবন্ধী ভাতা পেলেও এই মুহূর্তে করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়ায় চলছে না আমাদের সংসার। পানি বাদে সব কিছু কিনে খেতে হচ্ছে আমাদের। অন্যের জায়গায় বসবাস করে আসছি, নেই কোন জায়গা-জমি। লোক মুখ থেকে শুনেছি সরকারিভাবে অনেক কিছুই এাণ আসতেছে এলাকায়। কিন্তু আমাদের ভাগ্যে জুটে না। কে রাখে কার খোঁজ।”

ধর্মঘর বাজারের ব্যবসায়ী মালঞ্চপুর গ্রামের আহসান হাবীব (খুররম) হবিগঞ্জ নিউজের প্রতিবেদককে বলেন, “আমার জানামতে এই বাক প্রতিবন্ধী শমসের মিয়া আমাদের গ্রামে অন্যের জায়গায় থাকে। অত্যন্ত ভালো মানুষ। কিন্তু করোনার কারণেই এই হতদরিদ্র কর্মহীন বাকপ্রতিবন্ধী শমসের মিয়া ঠিক মত কাজ কর্ম করতে না পারায় দুই সন্তানকে নিয়ে পড়েছে বিপাকে। আমাদের গ্রামের লোকেরা ব্যক্তিগতভাবে যে যতটুকু পারি এই পরিবারটির জন্য সাহায্য করতে চেষ্টা করি। তবে আমি মনে করি করোনায় এই ক্লান্তিলগ্নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে কিছু সাহায্য এই পরিবারটিকে প্রদান করলে পরিবারটি অনেক উপকৃত হবে।”