যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের সব ফ্লাইট বন্ধ

Dr.Ak-Momen

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বাংলাদেশের সব অন অ্যারাইভাল ভিসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ইংল্যান্ড ছাড়া ইউরোপের সব দেশে ফ্লাইট আসা বন্ধ থাকবে। একই সময়ের মধ্যে বন্ধ থাকছে দেশের স্থল বন্দরগুলোও।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশে করোনাভাইরাস বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের মাধ্যমে এসেছে। এ কারণে আমরা কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’আজ শনিবার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

ড. মোমেন বলেন, ‘আমরা নিজেদের তাগিদে সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগামী দুই সপ্তাহ ৩১ মার্চ পর্যন্ত আমরা ইউরোপ ও বিশেষ করে যেসব এলাকায় করোনাভাইরাস অস্বাভাবিকভাবে বেশি সেসব এলাকার যাত্রীদের আমরা আমাদের দেশে আসা বন্ধ করব। দুই সপ্তাহ পর্যবেক্ষণ করব। আগামী মধ্যরাত ১২টা ১ মিনিটে কার্যকর হবে। এটা অবশ্য্ ইংল্যান্ড ছাড়া সব ইউরোপীয় দেশ।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যেসব দেশ বাংলাদেশ থেকে তাদের দেশে যাতায়াত বন্ধ করেছে যেমন ভারত, আমরাও একই আইন বলবৎ করব। এটিও স্বল্পকালীন। আগামী দুই সপ্তাহ অন অ্যারাইভাল ভিসা সব দেশের জন্য সাসপেন্ড করব।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যারা অস্বাভাবিকভাবে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া দেশ থেকে আসবে তাদের অবশ্যই দুই সপ্তাহের জন্য কোয়ারেন্টিনের সম্মুখীন হবে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, এরই মধ্যে সরকারের সিদ্ধান্ত বিভিন্ন দূতাবাসকে জানানো হয়েছে। তিনি বলেন, ‘জনগণের যেন কোনো ধরণের ঝুঁকি না হয় সেজন্য মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানের আকার পরিবর্তন করেছি আমরা। জনস্বার্থে এসব কাজ করতে হচ্ছে।’

ড. মোমেন আরো বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী একটি প্রস্তাবের মাধ্যমে সার্কের আটটি দেশের সরকার প্রধানকে ভিডিও কনফারেন্সের দাওয়াত দিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সায় দিয়েছেন।’পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আগামীকাল রোববার বিকেলে সাতটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ও পাকিস্তান সরকারের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেবেন।