আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় সেরা হবিগঞ্জের শাহেদ !

আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ‘আগোরা’র ২০২০ সালের চুম্বন থিমের সেরা পুরস্কারটি জিতলেন বাংলাদেশের আলোকচিত্রী শাহেদ আহমেদ। আগোরা কর্তৃপক্ষ এক ই-মেইল বার্তায় শাহেদ আহমেদকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

শাহেদ আহমেদ হবিগঞ্জের অন্ততপুরের মৃত আফাজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি হবিগঞ্জের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ সরকারি বৃন্দাবন কলেজে লেখাপড়া শেষ করে বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং / ফটোগ্রাফার হিসেবে কাজ করছেন। যে ছবিটা আগোরায় প্রথম হয় সেটা সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান থেকে ২০১৯ সালে শীতের ভোরে তোলা। ছবিটি কাঠ শালিকের চুম্বনের একটি দৃশ্য।

জানা যায়, স্পেনের বার্সেলোনায় ‘আগোরা’ প্রতিবছর বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। প্রতিযোগিতায় এবারের বিষয় ছিল চুম্বন। পৃথিবীর সেরা সেরা আলোকচিত্রী তাদের ছবি সেখানে জমা করেন। সেখান থেকেই বিচারকমণ্ডলী সেরা ৫০টি ছবি নির্বাচন করেন। বিচারকদের নির্বাচিত সেই ৫০টি ছবি ছেড়ে দেয়া হয় অনলাইন ভোটের জন্য। অনলাইনে আলোকচিত্রীদের ভোটে পাঁচটি ছবি নির্বাচিত হয় চূড়ান্ত পর্বের জন্য। চূড়ান্ত পর্বে এসে শাহেদ আহমেদের ছবিটিই সর্বাধিক ভোটে বিজয়ী হয়।

শাহেদ আহমেদ বলেন, আমার ফটোগ্রাফির শুরুটা হয় শখের বসে, তারপর আস্তে আস্তে ছবি তোলাটা নেশায় পরিণত হয়ে যায়। ২০১৭ সাল থেকে ছবি তোলা শুরু করি, প্রথমদিকে সব ধরনের ছবি তোলা হতো। এরপর হঠাৎ করে পাখি, ন্যাচার আর ওয়াল্ড লাইফের ছবি তুলতে ভালো লাগতে শুরু হয়। ২০১৯ সালে কাঠ শালিকের এই ছবিটি তুলি চুনারুঘাটের সাতছড়ি বাগানে।

হাজারও ছবির মধ্যে নিজের ছবিটি সেরাদের সেরা হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে শাহেদ আহমেদ বলেন, জীবনে প্রথমবার আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাওয়ায় অনেক বেশি আনন্দিত যা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। একটু হলেও দেশের জন্য কিছু করতে পেরেছি যার জন্য আমার ফটোগ্রাফি জীবনটা একটু হলেও সার্থক মনে হচ্ছে। তবে অর্জন আমাকে ভালো কিছু করতে উৎসাহ দিয়ে যাবে।