হবিগঞ্জে বিএনপির চার নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী

0
1

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে হবিগঞ্জের আট উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের গলার কাঁটা হিসেবে বিদ্রোহী প্রার্থীরা অনড় রয়েছেন। অপরদিকে বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেও চার নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটযুদ্ধে নেমেছেন।

গত মঙ্গলবার ছিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিন। হবিগঞ্জে নয়টি উপজেলা। প্রথম ধাপে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা ব্যতীত আটটি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে আগামী ১০ মার্চ। হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান শামীম। একই দলের পৌর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোতাচ্ছিরুল ইসলাম রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে।

বানিয়াচং উপজেলায় মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাহিত্য ও ক্রীড়া সম্পাদক আবুল কাশেম চৌধুরী। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন খান।

আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় নৌকার প্রতীক পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মর্তুজা হাসান। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন। তিনি আওয়ামী লীগের সমর্থক। তার বাবা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মরহুম আতর আলী ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

নবীগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা কমিটির সহসভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর চৌধুরী। স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম। লাখাই উপজেলায় দলের মনোনয়ন পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুশফিউল আলম আজাদ।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজুল আলম ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রফিক আহমদ।

চুনারুঘাট উপজেলায় নৌকার প্রতীক পেয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল কাদির লস্কর। মনোনয়ন না পেয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন।

মাধবপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান। স্বতন্ত্র হিসেবে মাঠে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এহতেশামুল বার চৌধুরী লিপু। জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মজিদ খান এমপি বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। দলের সভায় আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে বিএনপির যে চার নেতা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছেন, তারা হলেন আজমিরীগঞ্জে উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক খালেদুর রহমান ঝলক, চুনারুঘাটে উপজেলা বিএনপির সভাপতি সৈয়দ লিয়াকত হোসেন, মাধবপুর উপজেলায় জেলা বিএনপির সহসভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ মো. শাহজাহান ও বানিয়াচংয়ে জেলা বিএনপির সহসভাপতি মঞ্জুর উদ্দিন শাহীন।

একটি উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে