শায়েস্তাগঞ্জে মাদ্রাসার সুপার ও ইমামের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা

শায়েস্তাগঞ্জে মাদ্রাসার সুপার ও ইমামের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা

সৈয়দ আখলাক উদ্দিন মনসুরঃ হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার ব্রাহ্মনডুরা শাহজালাল (রহঃ) এর দাখিল মাদ্রাসার সুপার, মাদ্রাসার শিক্ষক ও মসজিদের ইমাম এর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলকভাবে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত হয়েছে।

৭ই মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ব্রাহ্মণডুরা ইউনিয়নে পুরাইকলা বাজারে প্রতিবাদ সভায় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতাকর্মী, শিক্ষক, ব্যবসায়ী, বিশিষ্ট মুরব্বী ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ সহশ্রাধিক লোক অংশগ্রহণ করে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

সভায় বক্তারা বলেন, ”মহিউদ্দিন কিন্ডার গার্টেনের প্রতিষ্ঠাতা ফখর উদ্দিন সাজিব নিজের স্বার্থ হাসিলের জন্যে ব্রাহ্মণডুরা শাহজালাল (রহ:) দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে মাদ্রসার শিক্ষার্থী কমিয়ে তার প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রী বাড়ানোর জন্য দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।”

শায়েস্তাগঞ্জে মাদ্রাসার সুপার ও ইমামের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা

বক্তারা আরো বলেন, “শাহজালাল (রহ:) দাখিল মাদ্রাসার সুনাম ক্ষুন্ন করার উদ্যেশ্যে মাদ্রাসার সুপার নূর মোহাম্মদ এবং মাদ্রাসার শিক্ষক ও মসজিদের ইমাম সাইদুর রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। তারা দুই জন সৎ এবং ভাল চরিত্রের মানুষ।”

উল্লেখ্য শাহজালাল (রহ:) দাখিল মাদ্রাসাটি ১৯৭৫ সালে প্রতিষ্টিত হয়। মাদ্রাসাটিতে ১ম শ্রেণী থেকে ৯ম শ্রেণী পর্যন্ত চালু রয়েছে এবং বর্তমানে শীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৪০০ জন।

এলাকার বিশিষ্ট মুরুব্বী আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, “মাদ্রাসাটির ক্ষতি সাধন ও বন্ধ করার উদ্যেশ্যে পায়তারা করে মিথ্যা অভিযোগ এই মামলা দায়ের করা হয়েছে। অবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।”

নারী দিবসে চলুন মানসিকতা পাল্টাই

এলাকার বিশিষ্ট মুরুব্বী আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্তে ও আওয়ামীলীগ নেতা মাহবুব হোসেন চৌধুরী দিলুর পরিচালনায় প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণডুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হোসাইন মোঃ আদিল জজ মিয়া।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোজাহের উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোলাম রাব্বানী ধানু, শৈলজুড়া গ্রামের বিশিষ্ট মুরুব্বী ও আওয়ামীলীগ নেতা দিলকুশা মিয়া, শাহ জালাল (রহ:) দাখিল মাদ্রাসার সুপার মুফতি নূর মোহাম্মদ ফেরদৌসসহ প্রমুখ।