খোয়াই নদীতে হাত-পা বাঁধা স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার

খোয়াই নদীতে হাত-পা বাঁধা স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার

হবিগঞ্জ সদর উপজেলার দক্ষিণ চরহামুয়া এলাকার খোয়াই নদী থেকে ইসমাঈল হোসেন বিদয় (১২) নামে এক স্কুল ছাত্রের হাত-পা বাঁধা রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গতকাল সোমবার দুপুর ১২ টায় স্থানীয় লোকজন সদর থানায় খবর দিলে ওসি মোঃ মাসুক আলীর নেতৃত্বে ওসি অপারেশন দৌস মোহাম্মদসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে লাশটি উদ্ধার করে, সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

নিহত স্কুল ছাত্র উপজেলা উত্তর তেঘরিয়া গ্রামের সৌদি প্রবাসী ফারুক মিয়ার পুত্র। সে তেঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্র। সন্দেহভাজন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

সন্ধ্যায় ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি পরিবারের জিম্মায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে, দাফন না করে লাশবাহী ফ্রীজ গাড়িতে রাখা হয়েছে লাশটি।

জানা গেছে তার প্রবাসী পিতা সোমবার বিকেলেই সৌদি আরব থেকে দেশে আসার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার দেশে ফেরত এসে লাশ দাফন করবেন বলে জানা গেছে। এই নৃংশস হত্যার ঘটনায় জেলায় জুড়ে তোলপাড়। অনেকের মধ্যে ভীতি সৃষ্টি হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১১ জানুয়ায়ী সে নিখোজ হয়েছিলো এবং এই মর্মে হবিগঞ্জ সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন তার মা শাহেনা আক্তার।

এর পর থেকেই শিশুটিকে   খুঁজতে নামে পুলিশ। হবিগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মাসুক আলী জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড।

নিহত বিদয়ের গায়ে অসংখ্য আঘাতের চিহৃ রয়েছে। তদন্ত চলছে আশা করা যায় খুব শীঘ্রই হত্যার রহস্য উদঘাটন করা হবে।