মুজিববর্ষ উপলক্ষে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসনের কর্মসূচি

আজ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ। আজ শত বছর পূর্ণ হলো বাঙালির হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ সন্তানের।

সোমবার (১৬ মার্চ) দিবাগত রাত শূন্যঘণ্টা শেষে ১৭ মার্চের সূচনালগ্নে শুরু হওয়া বহুল প্রতীক্ষিত মুজিব জন্মশতবর্ষ বছরজুড়ে উদযাপিত হবে।চলবে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত।

স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ রাত আটটায় গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। এই দিনটি এখন জাতীয় শিশু-কিশোর দিবস হিসেবেও উদযাপিত হয়।

সেই প্রেক্ষিতে হবিগঞ্জে  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ও শিশু দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি  হাতে নিয়েছে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসন। পাশাপাশি বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এই কর্মসূচি পালনের নির্দেশনা দেয়া হয়।

কর্মসূচির মধ্যে-মঙ্গলবার প্রথম প্রহরে সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে আলোকসজ্জা করা হয়। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সামনে নীমতলা কালেক্টর প্রাঙ্গনে তোপধ্বনি।

একই সাথে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন। সকাল ৭টায় জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ।

সকাল ৮টায় বিভিন্ন সরকারি দপ্তর, রাস্তা-ঘাটসহ হাটবাজার পরিস্কার অভিযান। সকাল ৯টায় নিমতলা কালেক্টর প্রাঙ্গনে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে মুজিবর্ষের জেলা পর্যায়ের অনুষ্ঠানের উদ্বোধন।

রাত ৮টায় নিমতালা কালেক্টর প্রাঙ্গনে আতশবাজি অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে গ্রন্থ, স্মরণিকা ও দেয়ালপত্রিকা প্রকাশিত হবে।

সেই সাথে মসজিদ, মন্দির, গির্জাসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।