পুত্রের নির্যাতনে ঘর ছাড়া মাকে ঘরে তুলে দিল চুনারুঘাট থানা পুলিশ

পুত্রের নির্যাতনে ঘর ছাড়া এক মা কে ঘরে তুলে দিল চুনারুঘাট থানা পুলিশ। আজ শনিবার চুনারুঘাট থানা পুলিশের পক্ষে এএসআই কামাল আহমেদ নির্যাতিত মা কে ঘরে তুলে দেন এবং আর্থিক সহযোগীতা করেন।

নির্যাতিত ঐ মা খুশবানু (৬০) জানান – কামাল আহমেদ নামে তার একমাত্র পুত্রকে জমি বিক্রি করে ৯ লক্ষ টাকা দিয়ে একটি পিকআপ গাড়ী কিনে দিয়েছিলেন তিনি। কথা ছিল তার মাও দুই বোনকে নিয়ে সংসারের খরচ চালাবে। কিন্তু কামাল কিছুদিন যেতেই তার মাকে আলাদা করে দেয় বলে তিনি অভিযোগ করেন । দুই মেয়েকে নিয়ে অসহায় হয়ে পড়েন খুশবানু । এর ধারাবাহিকতায় গত তিন মাস যাবৎ কামাল তার মাকে প্রতিনিয়ত মানুষিক ভাবে নির্যাতন করে আসছিল বলেও তিনি জানান ।

তাছাড়াও শুক্রবার রাতে কামালের স্ত্রী তার ঘরের বিদ্যুতের লাইনটি কেটে দেয় এবং ব্যাটারি চালিত একটিমাত্র লাইটট ও নিয়ে যায় বলেও তিনি জানান । এতে অন্ধকারে রাত যাপন করেন তিনি । পরদিন এই কথা নিয়ে তর্কবিতর্কের জের ধরে কামাল ও তার স্ত্রী মিলে তার মা খুশবানুকে ঘর থেকে বের করে দেয় বলে অভিযোগ খুশবানুর ।

এলাকাবাসী বিষয়টি চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক ও ওসি (তদন্ত) চম্পক ধাম কে জানালে তিনি দারোগা কামাল আহমেদকে ঘটনাস্থলে পাঠান এবং ঘটনার সতযতা যাচাই করে অসহায় মা কে ঘরে তুলে দেন। দারোগা কামাল তার ব্যাক্তিগত তরফ হতে ১ হাজার টাকা দিয়ে অসহায় এই মাকে সহযোগিতা করেন।

ঘটনাটি জানতে পেরে স্থানীয় যুবলীগ নেতা বেলাল ইফতার সামগ্রী পাঠান। এছাড়াও এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে কামালের গাড়িটি পুলিশের জিম্মায় নেয়া হয়।